SEO

SEO কী? ওয়েবসাইটের জন্যে SEO কতটুকু জরুরী?

SEO অর্থ Search Engine Optimization যার বাংলা অর্থ একটি ওয়েবসাইটকে সার্চ ইঞ্জিনের জন্যে সহজে বোধগম্য বা উপযোগী করে তোলা। বর্তমান সময় গুগল সার্চ ইঞ্জিনের একছত্র আধিপত্য হওয়ার কারণে অনেকে SEO বলেতে বোঝেন গুগল সার্চ রেজাল্টের সুনির্দিষ্ট কী ওয়ার্ডে (KeyWord) একটি ওয়েবসাইটকে কিভাবে প্রথম পেজে নিয়ে আসা যায়। উল্লেখ্য যে, Keyword (কী ওয়ার্ড) বলতে ঐ সমস্ত শব্দগুলোকে বোঝায় যেগুলো দিয়ে আপনার ওয়েবসাইটকে চেনা যেতে পারে যেমন, আপনার ওয়েবসাইট যদি বাংলাদেশ বা ঢাকা’র ইলেকট্রনিক্স দোকান রিলেটেড হয় তাহলে আপনার কী ওয়ার্ডস হলো ‘ইলেক্ট্রনিক্স শপ ঢাকা‘।

ওয়েবসাইটের জন্যে SEO কতটুকু জরুরী?

প্রশ্নটির উত্তর দেয়া সহজ কিন্তু বোঝানো সম্ভবত কঠিন। কারণ SEO জরুরী, কিন্তু SEO এর জন্যে বিশেষ কিছু করা জরুরী নয়। অন্তত ২০১১ সালের ফ্রেব্রুয়ারীতে গুগলের সার্চ এ্যালগোরিদেমের একটি বিশেষ আপডেটের পর যার কোড নেম ছিলো পান্ডা, যারা SEO এর জন্যে বিশেষ কিছু করেছিলেন তাদের অধিকাংশকেই পেনালাইজড করা হয়! আর এই আপডেটের সুত্র ধরেই বন্ধ হয়ে যায় অনেক SEO ফার্ম ও পপুলার ওয়েবসাইটও!

এরপর পান্ডার সাথে যোগ করা হয় পেঙ্গুইন কোড নেমে’র আরেকটি আপডেট যেগুলোর মূল লক্ষ্যই ছিলো এক্সেসিভ SEO এর মাধ্যমে যারা গুগল সার্চ রেজাল্টকে প্রভাবিত করার চেষ্টা করেছেন তাদেরকে সার্চ রেজাল্ট থেকে বাদ দেয়া! পরবর্তীতে বেশ কিছু আপডেটের মাধ্যমে পান্ডা ও পেঙ্গুইনকে আরো শক্তিশালী করা হয় যা এখনো SEO মার্কেটিয়ারদের মাথা ব্যথার একটি অন্যতম কারণ হয়ে আছে!

ভুল SEO আপনার ওয়েবসাইটকে লাভবিত না করে বরং ক্ষতিগ্রস্ত করে দিতে পারে! তাহলে কিভাবে সার্চ ইঞ্জিনের জন্যে আপনার ওয়েবসাইটকে অপটিমাইজ করবেন?

আসল SEO হলো ভ্যালুয়েবল কনটেন্ট আর তা নিয়মিত আপডেট রাখা, গুগল নিজেই তার SEO স্টার্টার গাইডে SEO বলতে কি লিখেছে দেখুন “Search engine optimization (SEO) is often about making small modifications to parts of your website.” (তথ্য সুত্র: গুগল’স SEO স্টার্টার গাইড) ‘স্মল মডিফিকেশন‘ বলতে কি অনেক কিছু করা বোঝানো হয়েছে? না, বরং সার্চ ইঞ্জিনকে আপনার ওয়েবসাইটের সঠিক আইডেন্টফিকেশনে সহযোগিতা করার জন্যে সাইটের কিছু স্থানে সামান্য পরিবর্তন করা বোঝানো হয়েছে! তাহলেই কিন্তু আপনার অনসাইট SEO ডান! এজন্যে অনেক কছু জানা লাগবে তা’ও না। নিচে একটি চেক লিস্ট দেয়া হলো, দেখে নিন কি কি করা যেতে পারে আর কি কি নয়।

উল্লেখ্যে যে SEO কে সাধরণত দুইভাগে ভাগ করা হয় একটিকে বলা হয় অনসাইট (OnSite) আরেকটিকে বলা হয় অফসাইট (OffSite) SEO। অন সাইট SEO বলা হয় আপনি আপনার সাইটের মধ্যে অপটিমাইজেশনের জন্যে যা কিছু করলেন তাকে, আর অফসাইট SEO বলা হয় সাইটের বাইরে অপটিমাইজেশনের জন্যে যেসব পদক্ষেপ নিলেন সেগুলোকে।

SEO এর জন্যে যা কিছু করবেন

  • মান সম্মত এবং গঠনমূলক কনটেন্ট তৈরি করুন,
  • কোনো CMS ব্যবহার না করলে নিশ্চিত হোন প্রতিটি পেজের <title> টাইটেল ট্যাগে পেজগুলোর সঠিক টাইটেল ব্যবহার করা হয়েছে কিনা,
  • নিশ্চিত হোন আপনার ওয়েবসাইট মোবাইল রেসপনসিভ কিনা,
  • ইমেজ বা ছবিগুলোর অল্টার ট্যাগে (alt =”tag”) যথা সম্ভব ছবিগুলোর বিষয়বস্তু উল্লেখ করে দিন,
  • নিয়মিত ওয়েবসাইটের কনটেন্ট আপডেট করুন,
  • গঠনমূলক লিংক স্ট্রাকচার (Structured URL) গড়ে তুলুন যেমন www.yoursite.com/2hdwlsdsp এরকম লিংক ব্যবহার না করে ব্যবহার করুন www.yoursite.com/gift-items,
  • গুগল সার্চ কনসোলে এবং বিং ওয়েবমাস্টার টুলে আপনার ওয়েবসাইটটি এ্যাড করান,
  • সাইটের সকল পেজের লিংকসহ একটি সাইটম্যাপ তৈরি করুন এবং তা গুগল সার্চ কনসোলে এ্যাড করান,
  • অফ সাইট SEO এর জন্যে টুইটার ও ফেসবুকে ফ্যান পেজ তৈরি করুন,
  • অফ সাইট SEO এর জন্যে উচ্চ মান সম্মত ওয়েব সাইটে আর্টিকল পাবলিশিংয়ের মাধ্যমে কিছু ন্যাচারাল ব্যাক লিংক তৈরি করুন। মনে রাখবেন গুগল ন্যাচারাল (স্বাভাবিক গঠনমূলক) ও আন-ন্যাচারাল (শুধু সার্চ র‍্যাকিংয়ের জন্যে অধিক পরিমানে ব্যাকলিংক তৈরি) লিংকের মধ্যে খুব সহজেই পার্থক্য তৈরি করতে পারে! আন-ন্যাচারাল ব্যাকলিংক আপনার সাইটের র‍্যাংকিংকে ক্ষতিগ্রস্ত করতে পারে।

SEO এর জন্যে যা কিছু করবেন না

  • কী ওয়ার্ডস (Keywords) স্প্যামিং বা এক পেজে একই শব্দ ঘুরিয়ে ফিরিয়ে বারবার লিখবেন না,
  • একই কনটেন্ট দিয়ে একাধিক পেজ তৈরি করবেন না,
  • হাই পি.আর (High PR) ব্যাকলিংক বা গ্যারান্টেড SEO র‍্যাংকিং” এর মতো কোন বিজ্ঞাপন থেকে SEO সার্ভিস ক্রয় করবেন না, এই বিষয়ে গুগলের অভিমত দেখুন
    Don’t feel obligated to purchasesearch engine optimization service. Some companies claim to “guarantee” high ranking for your site in Google’s search results. While legitimate consulting firms can improve your site’s flow and content, others employ deceptive tactics in an attempt to fool search engines. Be careful; if your domain is affiliated with one of these deceptive services, it could be banned from our index. তথ্য সুত্র: গুগল ওয়েবমাস্টার সাপোর্ট

    যদি কোন SEO সার্ভিস ক্রয় করতেই চান পরিচিত এবং বিশ্বস্ত কারো নিকট থেকে তা ক্রয় করুন।

মনে রাখবেন বর্তমানে সঠিক SEO যেমন আপনার সার্চ ভিজিবিলিটি বাড়াতে পারে অন্যদিকে অনভিজ্ঞ কিংবা ভুল পদক্ষেপের ফলে SEO আপনার ওয়েবসাইটকে ক্ষতিগ্রস্তও করে দিতে পারে। SEO বলতে বুঝবেন কোন ঝুঁকি না নিয়ে নিজে নিজেই ন্যুনতম পদক্ষেপগুলো সম্পন্ন করার পর ওয়েবসাইটকে ভ্যালুয়েবল কনটেন্ট রিচ করতে সচেষ্ট হওয়া। গুগল সার্চ বক্সে একটি কীওয়ার্ড লিখে এন্টার বাটনে চাপ দেয়ার সাথে সাথে রেজাল্টটি প্রদর্শনের পূর্বে ২০০ রকম ফিল্টার করা হয় যা গুগলের ভাষায় টু হান্ড্রেড সিগন্যাল (200 Signal) নামে পরিচিত, যার একটি হলো একটি ওয়েবসাইটের এজ (age) বা বয়স, ভুল SEO এর কারণে যদি আপনার ৫ বছরের পুরোনো ওয়েবসাইট গুগল ইনডেক্সিং থেকে বাদা পড়ে যায় সেক্ষেত্রে অনেক সময় অন্য আরেকটি ডোমেইনে নতুনভাবে শুরু করার কোন বিকল্প নাও থাকতে পারে! তাহলে কি সামান্য ভুলে ৫ বছরের একটি এন্টিক ভ্যালু হারিয়ে ফেললেন না! SEO বিষয়ে যারা আরো বিস্তারিত জানতে চান তারা গুগলের SEO স্টার্টার গাইড পড়ে দেখতে পারেন।

Back to list